অবকাঠামােগত উন্নয়ন নেই রামগঞ্জের একমাত্র শিশুপার্কটির গেটে তালা ঝুলছে দীর্ঘদিন

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:৩৮ AM, ৩০ অগাস্ট ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ কর্তৃক পরিচালিত রামগঞ্জ পৌর শহরের শিশুদের চিত্তবিনােদনের জন্য নির্মিত একমাত্র শিশুপার্কটির গেটে প্রায় এক বছর ধরে তালা ঝুলছে। পার্কের ভেতরে চিত্তবিনােদনের অবকাঠামাে বলতে কিছুই নেই , শূন্য মাঠ খাঁ খাঁ করছে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে শিশুপার্কটি দখলমুক্ত করে লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ। পরে পার্কের প্রধান গেট সংস্কার করে ভেতরে তালা ঝুলিয়ে বন্ধ করে রাখে। এর আগে পার্কটি নির্মাণসামগ্রীর কারখানা ও গরু ছাগলের চারণভূমিতে পরিণত হয়েছিল। সে সময় ভােরের কাগজসহ বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে একাধিকবার খবর প্রকাশিত হলে জেলা পরিষদের টনক নড়ে। পরে শিশুপার্ক দখলমুক্ত করে নতুন করে অবকাঠমাে তৈরি না করে গেট সংস্কার করে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাে . শাহজাহান ও রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোয়ারী নতুন গেট নির্মাণের সময় জানান , শিশুপার্কটি দীর্ঘদিন ধরে পরিত্যক্ত ছিল। এ ব্যাপারে বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়।

সে সময় তিনি বলেন , অচিরেই শিশুপার্কটি শিশুদের বিনােদনের জন্য দৃষ্টিনন্দন করে জেলার মডেল শিশুপার্কে পরিণত করা হবে। কিন্তু দীর্ঘ ১০ মাস পেরিয়ে গেলেও পার্কেও ভেতরে শিশুদের বিনােদনের কোনাে অবকাঠামাে তৈরি না করে গেট সংস্কার করে তালা দিয়ে বন্ধ। করে রেখেছেন । সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে , ২০০৫ সালে রামগঞ্জ শিশুপার্কটি উদ্বোধন করা হয় । সে সময় পার্কের চারদিকে প্রাচীর নির্মাণ করা হয় । পার্কের ভেতরে অনেক পাকা বেঞ্চ , শিশুদের খেলার জন্য সামগ্রী তৈরি করা হয়। বিভিন্ন জাতের ফুল , ফল ও কাঠগাছ লাগানাে হয় । পরে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের শাসনকালে পার্কটি যথাযথভাবে চালু করার ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেয়াহয়নি । দীর্ঘদিন সংস্কার রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে পার্কের দক্ষিণ ও পশ্চিম দিকের গেট কে বা কারা খুলে নিয়ে গেছে। শিশুদের বসার পাকা বেঞ্চ , দোলনা ও খেলার সামগ্রী ভেঙে ফেলা হয়েছে । পার্কে লাগানাে কোনাে গাছেরই অস্তিত্ব নেই । স্থানীয় প্রভাবশালী মহল প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ।

বৈশাখীমেলা ও বাণিজ্যমেলা বসিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। পার্কটিতে শিশুদের চিত্তবিনােদনের কোনাে সুযােগ নেই । গড়ে তােলা হয়নি কোনাে অবকাঠামাে। সুশীল সমাজের অনেকে ক্ষোভের সঙ্গে বলেন , স্থানীয়।

জনপ্রতিনিধি ও জেলা পরিষদের কর্মকর্তাদের উদ্যোগের অভাবে। শিশুপার্কটি দীর্ঘদিন ধরে চরম অবহেলায় বন্দি হয়ে আছে । পার্কটির অবকাঠামাে সব ধ্বংস হয়ে গেছে। নতুন অবকাঠামাে দ্রুত তৈরি করে পার্কটি শিশুদের চিত্তবিনােদনের জন্য খুলে দেয়ার দাবি জানান তারা।

আপনার মতামত লিখুন :