বাকালা (গ্রোসারি স্টোর) সৌদি করন করার চিন্তাভাবনা করছে সৌদি মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৩৯ AM, ২৯ অগাস্ট ২০২০

 

গাজী আল মামুন সৌদি আরবঃ
সৌদি আরবের মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের কমার্শিয়াল সেক্টরের পরিচালক আব্দুল সালাম আল তুয়াইজরি জানিয়েছেন, বাকালা (গ্রোসারি স্টোর) সৌদিকরণ এর ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করেছেন তারা, এবং এরই মধ্যে এ সেক্টর সৌদিকরণ আর করার ব্যাপারে স্টাডি করেছেন। এরকম তথ্যগুলি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন বাকলা সৌদিকরণ এর ব্যাপারে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু উপায় পর্যালোচনা করেছেন তারা। একটি হচ্ছে বাকালার মোট কর্মচারীর সংখ্যা অনুসারে ধীরে ধীরে সৌদিকরণ করে ৭০% কর্মচারী সৌদি নাগরিকে পরিণত করা।

তিনি আরো জানান সৌদি আরবের বেশিরভাগ চাকরিপ্রার্থী নাগরিক যারা সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট ধারী, অথবা ডিপ্লোমাধারী, তাদের শ্রম মার্কেটে কোন প্রকার অভিজ্ঞতা নেই। চাকরিপ্রার্থীদের বড় চাকরি দেওয়া হলে অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতার অভাবে প্রাইভেট সেক্টর গুলো অচল হয়ে পড়বে। অপর দিকে বাকালা দেশের অন্যতম একটি সেক্টর, এখানে রয়েছে প্রচুর কাজ, এখানে কাছ করতে পূর্বের অভিজ্ঞতা দরকার হয় না। অনভিজ্ঞরা এখানে কাজ করে দক্ষ হয়ে উঠতে পারে। তাই বিশাল সংখ্যক বেকার সৌদি নাগরিকদের কে এই সেক্টরে কাজ দেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে বলে জানান তিনি।

সম্প্রতি সৌদি আরবের ৯টি সেক্টরে ৭০ শতাংশ সৌদিকরণ করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ফল-সবজির দোকান, লাইব্রেরী স্টেশনারী দোকান, মাছ-মাংসের দোকান, ইত্যাদি। এসকল সেক্টরে মোট কর্মচারীর ৭০ শতাংশ কর্মচারী সৌদি নাগরিক রাখতে হবে, যা সরাসরি সরকারি সংস্থা তদারকি করে।

বর্তমানে সৌদি আরবের বেশিরভাগ বাকলা (গ্রোসারি স্টোর) প্রবাসী বাংলাদেশী ও ভারতীয়রা কাজ করছেন। যদি গ্রোসারি স্টোর সৌদিকরণ করা হয় তবে চাকরি হারাবেন অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশী। ইতিমধ্যে ৯ টি সেক্টরের কর্মক্ষেত্র থেকে চাকরি হারিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন অনেক প্রবাসী।

বর্তমানে সৌদি আরবের বেশিরভাগ বাকালা বা গ্রোসারি স্টোরে প্রবাসী বাংলাদেশী ও ভারতীয়রা কাজ করছেন, যদি বাকালা এবং এই সেক্টরটি সৌদিকরণ করা হয়, তবে চাকরী হারাবেন অসংখ্য প্রবাসী বাংলাদেশী। ইতিমধ্যেই সম্প্রতি সৌদিকরণ হওয়া ৯টি সেক্টরের কর্মক্ষেত্র থেকে চাকরী হারিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন অনেক প্রবাসী, এবং বাকালার সৌদিকরণ সৌদি আরবে কর্মরত প্রবাসীদের কর্মহারা হয়ে দেশে ফিরতে বাধ্য করবে বলে অনুমান করছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

আপনার মতামত লিখুন :