Agaminews
Dr. Neem Hakim

১৯৭১ (পর্ব ২)


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ২৪, ২০২০, ১০:১৬ অপরাহ্ন /
১৯৭১ (পর্ব ২)

মিজানুর রহমান বসুন্দিয়া।

ইতি মধ্যে পত্রের মাধ্যমে মায়ের কলেরায় আক্রান্ত হবার সংবাদ পাই, মন খারাপ, যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় বাড়ীতে ফেরাও সম্ভব হচ্ছে না, এর মধ্যেই বাদশা ভাইয়ের দোকানে খবর এলো একজন বাঙ্গালী আর্মি এসেছে সে আগামী কাল থেকে যুবকদের ট্রেনিং করাবে।

পরদিন সকালে নির্দ্দিষ্ট স্থানে পৌছে দেখি এলাহি কান্ড, শত শত যুবক মাঠে হাজির ট্রেনিং নেবার জন্য, সবাই লাইনে দাড়ানো, আমিও দাড়িয়ে গেলাম, সামনে একজন দাড়িয়ে উত্তেজিত হয়ে বক্তিতা করছে, তার বক্তিতায় ২৫ মার্চের পাকিদের নির্মমতার চিত্র ফুটে উঠছে, কি ভাবে রাতের আধারে নিরিহ নিরাস্ত্রা বাঙ্গালীদের উপর, কত মানুষ মেরেছে নির্বিচারে, কত বাড়ি আগুন দিয়েছে, কত নারী ধর্ষন করেছে। এসব শুনে অনেকের চোখে পানি আটকে রাখতে পারছেনা আবার উত্তেজনায় টগবগ করছে।
আমি চারিদিকে খুঁজছি সেই বাঙ্গালী আর্মী যে যুবকদের প্রশিক্ষন দেবে। কোথাও দেখছি না আমার দেখা মিলিটারী পোষাক পরা দশাসই অস্ত্রধারি একজন মানুষ যা আমি দেখেছিলাম আমাদের বাড়ীর পাশে বাঁশ বাগানে ট্রেনিং করতে আসলে। না, তেমন কোন মিলিটারি আমার চোখে পড়লো না, হতাশ হলাম কিন্তু উনার বক্তিতায় কেমন একটা ঘোর লাগায় ফিরেও এলাম না, বাড়ীর কথা ভুলে মায়ের কলেরার কথা ভুলে সবার মত বুক টান করে লাইনে দাড়িয়ে রইলাম। ( চলবে)