Agaminews
Dr. Neem Hakim

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির( মার্কসবাদী) খুলনা জেলার সম্মেলন-২০২০ অনুষ্ঠিত


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ১৮, ২০২০, ৬:৩৫ অপরাহ্ন /
বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির( মার্কসবাদী) খুলনা জেলার সম্মেলন-২০২০ অনুষ্ঠিত

স্বীকৃতি বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার:

বিজয়ের এই মাসে দেশের সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি, অসাম্প্রদায়িক, শোষণ মুক্ত সমাজ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে যারা দেশের জন্য শহীদ হয়েছেন তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা ও যে সকল মাবোনেরা নির্যাতিত হয়েছেন তাদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে ‘ কৃষি ও কৃষক বাঁচাও,পাটকল,চিনিকল চালু, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, লুটপাট, সাম্প্রদায়িকতা- মৌলবাদ রুখ- কমিউনিস্ট ঐক্য গড়ে তোল ‘ এই প্রত্যয় নিয়ে আজ ১৮ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১১ টার দিকে খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার বরুনাবাজারের ধামালিয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্স বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির( মার্কসবাদী) খুলনা জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কম. ইকবাল কবীর জাহিদ। সভায় বক্তব্য রাখেন সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য তুষার কান্তি দাস, খুলনা জেলার আহব্বায়ক গাজী নওশেদ আলী, খুলনা জেলার বাম জোটের সমন্বয়ক কম, মনির হোসেন, সিপিবির কেন্দীয় নেতা কম. এম এ রশিদ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগনেতা মোস্কফা খালিদ, বাসদ নেতা জনার্দন দত্ত নান্টু, গনসংহতি নেতা মনির চৌধুরী, কমিউনিস্ট লীগ নেতা আনিসুর রহমান মিঠু, কৃষক নেতা লুৎফর রহমান, ছাত্র নেতা আলামিন শেখ, মিন্টু ইসলাম মিঠুসহ বাম ঘরনার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন কম. মোজাম্মেল হক খান।

সভায় বক্তারা সম্প্রতিক সময়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙাকে দেশের স্বাধীনতার উপর হস্তক্ষেপ বলে মনে করেন।এছাড়া সম্প্রতিক সময়ে পাটকলচিনিকল বন্ধের তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং কৃষি ও কৃষক বাঁচানোর জন্য দক্ষিণবঙ্গের ভবদহ সমস্যার সমাধানের জন্য টিআরএম প্রকল্প গ্রহণসহ বাংলাদেশের সম্প্রতিক কালের রাজনৈতিক সমস্যা বিশ্লেষন ও সমস্যা সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা করেন।

সভাশেষে সর্বসম্মতিক্রমে শ্রমিকনেতা মোজাম্মেল হক
খানকে সভাপতি এবং গাজী নওশের আলীকে সাধারণত সম্পাদক করে ১৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়।অন্য সদস্যরা হলেন- গাজী লুৎফর রহমান, মোখলেছুর রহমান, স্বপন কুমার মল্লিক, শফিউর রহমান,গোলাম হোসেন মোড়ল,তুহিন আহম্মদ, পবিত্র হালদার,জামাল মোল্যা।বাকি ৫ জন কোঅপ্ট করার সিদ্ধান্ত হয়।