Agaminews
Dr. Neem Hakim

১৯৭১ – এর আজকের এই দিনে


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : ডিসেম্বর ৯, ২০২০, ৬:৩৯ অপরাহ্ন /
১৯৭১ – এর আজকের এই দিনে

স্বীকৃতি বিশ্বাস।

“সময় ও নদীর স্রোত”- যেমন কারো জন্য অপেক্ষা করে না তেমনি ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় পাক বাহিনীর জন্য সময় অপেক্ষা করেনি এবং তাদের পরাজয় নদীর স্রোতের মত দ্রুত গতিতে এগিয়ে আসছিল।যুদ্ধের শুরুতে সুশিক্ষিত পাক সেনাপতিরা ব্যঙ্গ করে বলেছিল, আমরা স্কাউটদের সঙ্গে যুদ্ধ করতে যাচ্ছি! কিন্তু মাত্র ৯ মাসেই মুক্তিপাগল বাঙালি দামাল ছেলেদের অর্থাৎ তাদের ভাষায় স্কাউটদের কাছেই এমনভাবে পরাজিত হতে হবে, মাথা নিচু করে দু’হাত তুলে প্রাণ বাঁচাতে আত্মসমর্পণ করতে হবে- এটা তাদের কল্পনাও ছিল না।

ডিসেম্বর মাসটা যেন মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বিজয় বিজয় আর বিজয়ের ছিল। ৯ডিসেম্বর এই দিন যুদ্ধ জয়ের আরও একধাপ এগিয়ে স্বাধীনতার খুবই দ্বারপ্রান্তে অবস্থান করছিল যৌথ বাহিনী। বিজয় ছিল অবসম্ভাবী।আর বাকিটা ইতিহাস।

ভারত ও ভুটান বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দানের পর ৯ ডিসেম্বর উপদেষ্টা পরিষদের প্রথম বৈঠক বসে। বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রিসভা ও আওয়ামী লীগ, ন্যাপ, কমিউনিস্ট পার্টি জাতীয় কংগ্রেসের সমন্বয়ে গঠিত উপদেষ্টা পরিষদের উক্ত যৌথ বৈঠকে” মুক্ত এলাকায় অসামরিক প্রশাসনের কার্যক্রম শুরু এবং খাদ্য, চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।”

কিন্তু বিষাক্ত কাল নাগিনীর যেমন মৃত্যুর পূর্বে শেষ ছোবল দেয় তেমনি মুক্তিযুদ্ধকে নস্যাৎ করে দেয়ার জন্য পাকিস্তান ও তার সহযোগী যুক্তরাষ্ট্র তখনও তাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে। আজকের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নিক্সন তার সপ্তম নৌবহরকে বঙ্গোপসাগরের দিকে রওনা দিতে আদেশ দেন। কিন্তু রাশিয়ার হুমকিতে নমনীয় হয়ে যুক্তরাষ্ট্র নৌবহর ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হয়।

এছাড়া এদিন গাইবান্ধা, কপিলমুনি, শেরপুরের নকলা, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ, গফরগাঁও ও ত্রিশাল, নেত্রকোনা, খুলনার পাইকগাছা, শ্রীপুর, যশোরের অভয়নগর, পূর্বধলা, চট্টগ্রামের নাজিরহাটসহ বিভিন্ন এলাকা মুক্ত হয়। মুক্ত এলাকাগুলোতে সগৌরবে স্বাধীন দেশের পতাকা উড়ে।
৯ ডিসেম্বর আজকের এই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, মুক্তিযোদ্ধারা ও রাষ্ট্রীয়ভাবে আলোচনা,শহীদ বেদীতে পুষ্প স্তবক অর্পণসহ নানা ধরনের কর্মসূচি পালন করছে।