খুলনায় কৃষি ব্যাংকের বিরুদ্ধে ৩২৫৪ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:০৪ PM, ২৫ অগাস্ট ২০২০

শেখ নাসির উদ্দিন, খুলনা প্রতিনিধিঃ

আদালতের মাধ্যমে নিষ্পত্তিকৃত বিষয় নিয়ে বার বার হয়রানির অভিযোগ এনে খুলনায় কৃষি ব্যাংকের বিরুদ্ধে তিন হাজার ২৫৪ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা করেছে সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) বিকেলে মামলায় বাদি পক্ষের আইনজীবী হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের এ তথ‌্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে গতকাল সোমবার (২৪ আগস্ট) যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে এ মামলার শুনানি সম্পন্ন হয়। শুনানি শেষে যুগ্ম জেলা জজ নুসরাত জেবিন মামলাটি গ্রহণ করে বিবাদিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন।

মামলার বাদিরা হলেন- মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-এর ব‌্যাবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ হোসেন চৌধুরী ও পরিচালক মো. নুরুল আলম চৌধুরী।

বিবাদিরা হলেন- কৃষি ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইসমাইল হোসেন, সাবেক মহাব্যবস্থাপক (রিকভারি ও আইন বিভাগ) হাবিবুল্লাহ, সাবেক উপ মহাব্যবস্থাপক (আইন বিভাগ) আ. হক ভূইয়া, উপ মহাব্যবস্থাপক গোলাম মাহবুব, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক হমায়ুন কবির, যুগ্ম পরিচালক আ. হামিদ, উপ পরিচালক মো. মকবুল হোসেন, অর্থ মন্ত্রণালয় ও সাধারণ বিমা কর্পোরেশনের সাবেক ডেপুটি সেক্রেটারি আ. আজিজ।

মামলায় বাদি পক্ষের আইনজীবী হারুন অর রশীদ জানান, মামলাটির নম্বর মানি সুইট ১২/২০২০। মামলাটি গত ১৩ আগস্ট দাখিল হয়। সোমবার মামলাটির রক্ষনীয়তা শুনানী শেষে বিচারক আগামী ৫ নভেম্বর বিবাদিদের লিখিত জবাব দেওয়ার জন্য সমন জারি করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০০১ সালের আগে বিভিন্ন সময়ে মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লি. কৃষি ব্যাংক এর খুলনা কর্পোরেট শাখা থেকে নয় কোটি ৪৬ লাখ টাকা ঋণ গ্রহণ করে। পরবর্তীতে ঝণ শোধ করতে না পারায় কৃষি ব্যাংক ২০০১ সালে সুন্দরবন সি ফুডস ইন্ডাস্ট্রিজ লি. এর বিরুদ্ধে খুলনার অর্থ আদালতে অর্থঋণ মামলা দায়ের করে ২১ কোটি ৫৬ লাখ টাকা দাবি করে।

এই মামলায় কৃষি ব্যাংক এর পক্ষে ডিক্রি হয়। ২০০৩ সালে কৃষি ব্যাংক একই আদালতে অর্থজারি মামলা করে। যেটি ২০০৯ সালে নিষ্পত্তি হয়। সে সময় মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লি. আদালতের মাধ্যমে এক কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যাংককে প্রদান করে ও ব্যাংক থেকে তাদের বন্দকী সম্পত্তি ছাড়িয়ে নেয়।

এরপর ২০১৫ সালে কৃষি ব্যাংক পুনরায় ২০০৩ সালের মামলাটি পুনরুজ্জীবিত করে, যেটি ২০১৬ সালে আদালত খারিজ করে দেন। আবার ২০১৭ সালে কৃষি ব্যাংক পুনরায় মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লি. এর বিরুদ্ধে অর্থঋণ মামলা করে, যেটি একই বছর আদালত খারিজ করে দেন। সর্বশেষ, ২০১৮ সালে কৃষি ব্যাংক দুদকে মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লি. এর বিরুদ্ধে ১৬ কোটি টাকার আত্মসাৎ মামলা করে। যা ২০১৯ সালে খারিজ করে দেন আদালত।

এভাবে আদালতের মাধ্যেমে নিষ্পত্তিকৃত বিষয়ে একের পর এক মামলা করে পরাজিত হওয়ার পরও কৃষি ব্যাংক পুনরায় ১৬ কোটি টাকা দাবি করে চিঠি ইস্যু করে ২০১৯ সালে। এর বিপরীতে বারবার ব্যাংক কর্তৃক হয়রানির স্বীকার হয়ে ব্যাংক এর বিরুদ্ধে এই অর্থ ক্ষতিপূরণ মামলা করেছে মেসার্স সুন্দরবন সি ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

আপনার মতামত লিখুন :