Agaminews
Dr. Neem Hakim

খুলনা মিডিয়া কাপ ক্রিকেটে মধুমতি চ্যালেঞ্জার্স অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : নভেম্বর ১০, ২০২০, ৬:৩৮ অপরাহ্ন /
খুলনা মিডিয়া কাপ ক্রিকেটে মধুমতি চ্যালেঞ্জার্স অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন

 শেখ নাসির উদ্দিন, খুলনা প্রতিনিধিঃ

পর্দা নামলো খুলনা প্রেসক্লাব আয়োজিত ওয়ালটন খুলনা প্রেসক্লাব মিডিয়া কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের জমকালো আয়োজনের। চার দলের আকর্ষনীয় এ প্রতিযোগিতায় অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে মধুমতি চ্যালেঞ্জার্স। মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) খুলনা জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতার ফাইনালে তারা ৫ উইকেটে রূপসা টাইগার্সকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়।

টসে জিতে ফাইনালে ম্যাচে রূপসা টাইগার্সকে ফিল্ডিংয়ে আমন্ত্রণ জানান মধুমতির অধিনায়ক মোহাম্মদ আলী সনি। ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে প্রতিপক্ষ অধিনায়ক সনির বোলিং তোপে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১২৩ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় রূপসা টাইগার্স। ১৫ রানে তাদের প্রথম উইকেট পড়লেও দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে হাসান মোল্লা ও তন্ময় দলকে বড় সংগ্রহের দিকেই নিয়ে যান।

উজ্জলের বলে মেহেদির হাতে ক্যাচ দিয়ে তন্ময় ফিরে গেলে এ জুটি ভাঙে। আউট হওয়ার আগে ৪৬ বলে ৪টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৫ রান করেন টুর্নামেন্টের ধারাবাহিক ভাবে রান করে যাওয়া তন্ময়। এরপর দ্রুত ফিরে যান হাসান মোল্লাও। হাসান মোল্লার ব্যাট থেকে আসে ২৩ রান। এরপর রূপসার আর কোন ব্যাটসম্যান সেভাবে ক্রিজে নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। বিশেষ করে সনির বলে একের এক উইকেট হারাতে থাকে তারা। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভার শেষে ৬ উইকেটে ১২৩ রানে থামে তাদের ইনিংস। যেখানে সনি একাই নেন ৫টি উইকেট, তাও মাত্র ১৩ রান খরচায়। বাকি উইকেটটি নেন উজ্জল। ১২৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মারুফের অনবদ্য ইনিংসে ভর করে ১৯.১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় মধুমতি চ্যালেঞ্জার্স। ১৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিলো মধুমতিও। সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করে জয়ের দিকে নিয়ে যান মারুফ। তবে অর্ধশত রান থেকে এক রান দূরে আউট হয়ে ফিরে যেতে হয় তাকে। ৫২ বলে ২টি বাউন্ডারি ও ২টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এ রান করেন তিনি। খেলার শেষদিকে এসে দারুণ রোমাঞ্চ তৈরী হয়। তবে মেহেদী ও ফেরদাউস দলকে কোন বিপদে পড়তে দেননি। এই দুই ব্যাটসম্যানের দৃঢ়তায় ৫ বল হাতে রেখেই জয় ও শিরোপা নিশ্চিত করে মধুমতি চ্যালেঞ্জার্স। মাত্র ১১ বলে ২টি বাউন্ডারির সাহায্যে ২৩ রান করেন মেহেদী। ফেরদাউসের ব্যাট থেকে আসে ৮ রান। এছাড়া এসএম কামালও ১৭ রান করে দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। প্রতিপক্ষ দলের হেলাল ১৭ রান খরচায় নেন ৩ উইকেট। একটি উইকেট নেন পাখি। ফাইনালে ৫ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা ম্যাচের পুরস্কার জিতে নেন চ্যাম্পিয়ন দলের অধিনায়ক মোহাম্মদ আলী সনি। পুরো টুর্নামেন্টে ২০২ রান সংগ্রহ করে ও ২ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্যা সিরিজের পুরস্কার জিতে নেন রানার্স আপ দলের তন্ময়। ফাইনাল খেলা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে ট্রফি ও একটি ওয়ালটন ফ্রিজ তুলে দেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। রানার্স আপ দলকে ওয়ালটনের পক্ষ থেকে দেয়া হয় একটি ওয়ালটন ৩২ ইঞ্চি টেলিভিশন ও ট্রফি দেয়া হয়। প্রতিটি ম্যাচে ম্যান অব দ্যা ম্যাচের পুরস্কারও দেয়া ওয়ালটনের পক্ষ থেকে। এছাড়া এ্যাংকর সম্রাটের পক্ষ থেকে প্রতিটি ম্যাচের দ্বিতীয় সেরা খেলোয়াড়েকে এক জোড় কেডস দেয়া হয়। খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মামুন রেজার পরিচালনায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা প্রশাসক ও খুলনা প্রেসক্লাবের প্রধান পৃষ্ঠপোষক মোঃ হেলাল হোসেন। প্রেসক্লাবের ক্রীড়া সম্পাদক আহমেদ মুসা রঞ্জুর তত্বাবধায়নে অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের এডিশনাল ডিরেক্টর মিল্টন আহমেদ, বিশ্বাস প্রোপার্টিজের স্বত্বাধিকারি আজগর হোসেন তারা, বিআরবি গ্রুপের মার্কেটিং ম্যানেজার মাহবুব চৌধুরী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সুজন আহমেদ, প্রেসক্লাবের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। উল্লেখ্য, খুলনা প্রেসক্লাবের আয়োজনে প্রথমবারের মতো ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হলো। গত ৬ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ প্রতিযোগিতায় মোট ৪টি দল অংশ গ্রহণ করে ফাইনালে মধ্যে দিয়ে প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হলো। অংশ গ্রহণকারী অপর দু’টি দল হলো শিবসা ওয়ারিয়র্স ও ভৈরব রাইডা