Agaminews
Dr. Neem Hakim

মেহেরপুরে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় সমাজ কল্যাণমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চায় বিএমএসএফ


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৮, ২০২০, ৯:০৫ অপরাহ্ন /
মেহেরপুরে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় সমাজ কল্যাণমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চায় বিএমএসএফ

মেহেরপুর সমাজসেবা অফিসে আজ কি ঘটেছিল। কেনইবা সেখানে সাংবাদিকরা গিয়েছিলো। এমন ঘটনার সবিস্তার জানতে মাননীয় সমাজ কল্যান মন্ত্রী বীর বাহাদুরের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কেন্দ্রিয় কমিটি। সংগঠনের আহবায়ক শহীদুল ইসলাম পাইলট ও সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর ঘটনা সুরাহা করতে মন্ত্রী মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। বিএমএসএফের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মাননীয় মন্ত্রী বাহাদুর আপনি একটি তদন্ত টিম গঠন করুন। জানুন; কেন আপনার অফিসার-কর্মচারীরা মিলে সাংবাদিকদেরকে অফিস কক্ষে আটকে সুপারী চোরের মত মারধর করে ভিডিও ভাইরাল করা হলো। কারনটা জানতে চায় দেশের সকল সাংবাদিকেরা। মন্ত্রী বাহাদুর আপনার মাধ্যমে আগামি তিনদিনের মধ্যে জানার অপেক্ষায় রইলাম। যদ্দুর জানাগেছে, তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন ডিবিসি নিউজের মেহেরপুর প্রতিনিধি আবু আকতার। এ সময় তার সঙ্গে থাকা ক্যামেরাও ভাঙচুর করা হয়। ক্যামেরাপারসনসহ তাকে ও বিডি রয়টার্স ডটকমের প্রতিনিধি জাকির হোসেনকে মারধর এবং অফিস কক্ষে আটকে রাখা হয়। পরে অন্য সংবাদকর্মীরা গিয়ে তাদের উদ্ধার করে। তবে প্রশ্ন রইলো, সাংবাদিকরা কেন গিয়েছিলো। এমনিতে সাংবাদিকরাতো যাবার কথা নয়। তবে কোন ঘটনার অনুসন্ধান করতে গিয়েছিল সেটিও জাতি জানতে চায়। সমাজসেবা অধিদপ্তরের সাথে সংশ্লিষ্টরা যে ভিজিডি থেকে বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, চিকিৎসা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতাসহ বিভিন্ন অনুদানের অধিকাংশই গলদকরন করে থাকেন তা কিন্তু কারো অজানা নয়। তবে ওই সাংবাদিকরা সুনির্দিষ্ট কোন অভিযোগের প্রেক্ষিতে গিয়েছিলেন তা শুধু আপনার (মন্ত্রী মহোদয়ের) লম্বা হাত দ্বারাই উদঘাটন সম্ভব। সম্প্রতি মাদারীপুরে এলজিইডি অফিসে সাবরিন জেরিন সাংবাদিক দম্পতির ওপর হামলাসহ বরিশাল বিএডিসি কার্যালয়ে তিন সাংবাদিকের ওপর বর্বরোচিত হামলা পরবর্তী পাঁচ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অযাচিত মামলার ঘটনায় আমাদেরকে ভাবিয়ে তোলে। মেহেরপুরের ঘটনায় যদি আগামি তিন দিনের মধ্যে সদুত্তর পাওয়া না যায় তবে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) ও সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির পক্ষ থেকে কর্মসূচী গ্রহন করা হবে।