Agaminews
Dr. Neem Hakim

বাইকে চড়ে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণ করলেন গোবিন্দগঞ্জের সেতু


বার্তাকক্ষ প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৮, ২০২০, ১:৪৩ অপরাহ্ন /
বাইকে চড়ে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণ করলেন গোবিন্দগঞ্জের সেতু

নিজ দেশের সৌন্দর্য উপভোগ করতে মোটর সাইকেল নিয়ে দেশের ৬৪টি জেলা ভ্রমণ করলেন গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের এক যুবক।ভ্রমণ পিপাসু এ যুবকের নাম আসিফ শরীফ সেতু সে গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের ঝিলপাড়ার বাসিন্দা ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিসংখ্যান বিষয়ক কর্মকর্তা শরিফুল আলম জুয়েলের পুত্র।

ভ্রমণ পিপাসু সেতু ঢাকায় ক্যাট ইন্জিন সার্ভিসিংয়ে কর্মরত।সেতু চাকুরির পাশাপাশি সারা দেশ ভ্রমণ করে ইতিমধ্যে চমক সৃষ্টি করেছে।সে গত বছরের ২০ ডিসেম্বর বাংলাদেশের উত্তরের শেষ প্রান্ত তেতুলিয়ার বাংলাবান্ধা হতে ভ্রমণযাত্রা শুরু করেন।তারপর কর্ম ব্যাস্ততার পাশাপাশি কখনো ৪টি জেলা,কখনো ৩টি জেলা এভাবে পর্যায়ক্রমে পূর্ব-পশ্চিমের রূপসা-পাথুরিয়াসহ সারা দেশ ভ্রমণ করে বুধবার(৬-নভেম্বর) দক্ষিণের শেষ প্রান্ত টেকনাফের জিরো পয়েন্টে পৌঁছেন তিনি। সারাদেশ ভ্রমণ শেষে ঢাকায় কর্মস্থলে পৌছার পর শনিবার(৯-নভেম্বর) সেতু গাইবান্ধার ডাক’ এর সাথে ভ্রমণের ইতিবৃত্ত নিয়ে কথা বলেন।

আলোচনায় আসিফ শরীফ সেতু বলেন, আমি কর্মস্থল ঢাকা হতে গোবিন্দগঞ্জে মোটরসাইকেল যোগে যাতায়াত করি,এ যাতায়াতের এক পর্যায়ে আমি মোটরসাইকেল যোগেই দেশ ভ্রমণের পরিকল্পনা করি। সেতু বলেন আমার ভ্রমণের অভিজ্ঞতার আলোকে বলতে পারি ভ্রমণের জন্য প্রথমে বাংলাদেশকে বেছে নিন। বাংলাদেশ ঘুরে পিপাসা মিটান। তার পরে আপনারা দেশের বাইরে যান। বাংলাদেশ ভ্রমণে বের হলে আপনারা বুঝতে পারবেন আমাদের দেশটি কত সুন্দর তা কল্পনা’ই করতে পারবেন না।সারাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলো ঘুরে দেখে আমি মুগ্ধ হয়েছি। এ বিষয়ে সেতুর পিতা শরিফুল আলম জুয়েল বলেন সেতু ছোটকাল থেকেই ভ্রমণ পিপাসু।সে গতবছর একদিন আমাকে এসে বললো দেশ ঘুরে দেখার ইচ্ছা তার, তখন আমি তাকে বাধা দেইনি। এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কৌচা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাধান শিক্ষিকা সেতুর মা নারগীছ আরা বেগম ময়না বলেন সেতু যখন প্রথম মোটর সাইকেলে দেশ ভ্রমণের পরিকল্পনা করে জেলায় জেলায় ভ্রমণ করে ছেলের নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম কিন্তু সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতে সে সুস্থ স্বভাবিকভাবে দেশ ভ্রমণ মিশন শেষ করেছে এতেই আমি খুশি।