Agaminews
Dr. Neem Hakim

ফ্রান্সে মহানবী (সা:) কে ব্যঙ্গ করার প্রতিবাদে বাইশারীতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল


আবদুল্লাহ আল হাদী প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৬, ২০২০, ৯:৩৮ অপরাহ্ন /
ফ্রান্সে মহানবী (সা:) কে ব্যঙ্গ করার প্রতিবাদে বাইশারীতে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল

ওবায়েদ,  নিজস্ব প্রতিবেদন :   বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নে ফ্রান্সে ইসলাম এবং মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর কার্টুন নিয়ে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রঁর সাম্প্রতিক কিছু বক্তব্যের প্রতিবাদে বাইশারীতে হাজার হাজার মুসল্লি জনতা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার ৬ নভেম্বর জুমার নামাজের পর থেকে ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদ থেকে মিছিলে মিছিলে বাইশারী বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ চত্বরে সমবেত হতে শুরু করে মুসল্লিগণ, বাইশারী ইউনিয়নের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বাইশারী বাজার চত্বরে মিলিত হয়ে এক বিশাল প্রতিবাদ সভা-অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নিয়েছে নারিচবুনিয়া, মাধ্যম বাইশারী,করলিয়ামুরা, লম্বাবিল,হলোদ্যাশিয়া, তুফান আলী পাড়া সহ হাজার, হাজার উম্মতে মোহাম্মদীরা। মিছিলকারীদের কারো হাতে প্লেকার্ড, কারো হাতে ব্যানার, এবং সবার অন্তরে ছিল প্রিয় নবীজির প্রতি ভালবাসা ও মুখে ছিল স্লোগান ।

সমাবেশে দক্ষিণ বাইশারী জামে মসজিদের সম্মানিত খতিব মাওলানা আব্দুল গফুরের পরিচালনায় স্বগত বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক আব্দুর রশিদ, আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের চেয়ারম্যান বাইশারীর কৃতি সন্তান ড. আল্লামা মোহাম্মদ ইউনুছ, বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলম, আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ ইলিয়াছ, বাইশারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফেজ মাওলানা জুবায়ের বিন আব্দুল হক, হাফেজ মুহাম্মদ ইসমাইল, আব্দুল মান্নান জিন্নাহ সহ আরো অনেকে।
বক্তারা মহানবীর (সাঃ) এর অবমাননাকারী ম্যাক্রোসহ শার্লি হেবদো পত্রিকা কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে ক্ষমা চাইতে বলেন। সেই সাথে যারা দেশের মধ্যেও নানা ভাবে ইসলাম, কোরআন ও মহানবী সম্পর্কে কুটুক্তি ও অবমাননাকর মন্তব্য করছেন তাদেরও বিচার দাবী করেন। বক্তারা সরকারের প্রতি ফ্রান্সের সকল পন্য নিষিদ্ধের ঘোষনা দেয়ার সাথে রাষ্ট্রীয়ভাবে ফ্রান্সের সরকারের প্রতি নিন্দা জানানোরও দাবী জানান।

তারা বলেন, মুসলমানদের রক্তে আগুন লাগিয়েছে মহানবীকে কটুক্তি করে। অনতিবিলম্ব এ ঘৃন্য কাজ থেকে ফিরে এসে ক্ষমা প্রার্থনা না করলে আরও কঠোর আন্দোলন করা হবে। বক্তারা আরো বলেন, হৃদয়ের স্পন্দন, আমাদের প্রিয় নবীকে নিয়ে ফ্রান্স যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে মুসলমান হিসেবে আমরা তা কোনভাবেই মেনে নিতে পারি না। এই ষড়যন্ত্র নতুন কিছু নয় অতীতেও এ ধরনের ঘৃণ্য অপকর্ম তারা করেছে। এর প্রতিবাদ শুধু মুখে করলেই হবে না আমাদের লিখনীর মাধ্যমেও উপযুক্ত জবাব দিতে হবে। বিদেশী শক্তিকে বুঝিয়ে দিতে হবে যত ষড়যন্ত্রই তারা করুক এই বিশ্বে ইসলামই টিকে থাকবে।

সমাবেশে শেষে বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর ও বাংলাদেশের শান্তি কামনায় মুনাজাত করেন মাধ্যম বাইশারী আব্দু রহমান ইবনে আউফ (রা:) এতিমখানার নির্বাহী পরিচালক মাওলানা মুহাম্মদ মনজুর।