বশেমুরবিপ্রবি’তে আইডি কার্ড প্রদানে অফিস সহকারী ও ডিপার্টমেন্টের অবহেলা

আবদুল্লাহ আল হাদীআবদুল্লাহ আল হাদী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৩৮ PM, ১৬ অক্টোবর ২০২০

বিশেষ প্রতিনিধি :    গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি)অস্তিত্ব সংকটে ভু্গছে হাজার হাজার শিক্ষার্থী। গত এক বছরেও (২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে) বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইডি কার্ড পায়নি অনেক শিক্ষার্থী। যার ফলশ্রুতিতে তাদেরকে নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে জানা যায়, গত ১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে অধ্যয়নরত অনেক বিভাগের শিক্ষার্থীদের এখন পর্যন্ত পরিচয় পত্র প্রদান করা হয়নি। তাদের মধ্যে রয়েছে ইএসডি, ইইই,এফএমবি, এফএবি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগ ও ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের অনেক শিক্ষার্থী। তাছাড়াও, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন বিভাগের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই তাদের আইডি কার্ড পায়নি বলে জানা যায়। এছাড়াও ইতিহাস বিভাগের অনুমোদনবিহীন অনেক শিক্ষার্থীকে সেন্ট আইডি ব্যতিত ভর্তি করা হয়েছে।
শিক্ষার্থীদের পরিচয় পত্র সংক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র উপদেষ্টা শারাফত আলী বলেন, আমি এই বিষয়ে পুরোপুরি অবগত নই। তবে এর আগে অফিস সহকারীদের মাধ্যমে আমি আমার বিভাগের সকল শিক্ষার্থীদের পরিচয় পত্র দেবার চেষ্টা করেছি। করোনা মহামারী এই সময়ে অনলাইন ক্লাস করবার জন্য ডিভাইস এবং শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য তালিকা করার সময় ইতিহাস বিভাগের কারিমুল হকের মাধ্যমে জানতে পেরেছি যে অনেক শিক্ষার্থীর স্টুডেন্ট আইডি নেই।”

তিনি বলেন, ” আইডি কার্ড হলো একজন শিক্ষার্থীর আইডেন্টিটি। আইডি কার্ড বিভাগ থেকে প্রদান করা হবে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে। এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ। এক্ষেত্রে যেসব বিভাগে এখন পর্যন্ত এ ধরনের সমস্যা রয়েছে বা আইডি কার্ড প্রদান করা হয়নি, সে সকল ডিপার্টমেন্টের চেয়ারম্যান মহোদয় এবং অফিস সহকারীর দূর্বলতা রয়েছে। কেউ আইডি কার্ড পাওয়া থেকে বাদ থাকবে না।”
তিনি আরও জানান, “এ বিষয়ে আমি ভিসি মহোদয়কে অবগত করে প্রক্টর স্যারের সাথে কথা বলবো। একইসাথে যে সকল বিভাগে আইডি কার্ড প্রদান করা হয়নি, সে সকল বিভাগকে রেজিস্ট্রার দপ্তরের মাধ্যমে অতি দ্রুত অফিসিয়াল চিঠি দেবার মাধ্যমে অবগত করার চেষ্টা করা হবে বলে জানান তিনি।”

উল্লেখ্য যে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানায়, করোনা মহামারী পূর্ববর্তী সময়ে আইডি কার্ড সংক্রান্ত বিষয়ে নিজস্ব বিভাগের অফিস সহকারীর কাছে এই বিষয়ে জানতে চাইলে বিভাগের চেয়ারম্যান মহোদয় সরাসরি এই বিষয়ে ঐ শিক্ষার্থীকে বলেন, এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় নয় যে সবকিছু অতি দ্রুত পাওয়া যাবে।

আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নানাবিধ সংকট আছে, আস্তে আস্তে সব কিছু সমাধান করা হবে। আইডি কার্ড পাবার অধিকার একজন শিক্ষার্থীর মৌলিক অধিকারের মধ্যে পরে। অতি দ্রুত এ সমস্যা সমাধান করা হবে। এ বিষয়ে বার বার বিভাগে আশার প্রয়োজন নেই বলে জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :