২৫০০০ নতুন ভিসায় কারা যেতে পারবেন সৌদি আরবে

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:২৪ PM, ০১ অক্টোবর ২০২০

প্রবাসী ডেস্কঃ

করোনা মহামারীর আগে সৌদি আরবের যাওয়ার জন্য যাদের ভিসা স্টাম্পিং হয়েছে অথবা প্রসেসিং চলছে এই ধরনের সকল ভিসা সৌদি সরকার ক্যান্সেল করে দিয়েছেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের কে বলেন বর্তমানে সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য যেসকল প্রবাসীরা দেশে অবস্থান করছে তাদেরকে ধৈর্য ধারণ করতে বললেন। ইতিমধ্যে সৌদি সরকারের দেওয়া সময়ের মধ্যে যারা টিকেট জটিলতায় অথবা ভিসা আকামার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় যেতে পারবেন না। ঐ সকল প্রবাসী কর্মীদের কে তাদের স্পনসর (অথবা কফিল) এর সাথে যোগাযোগ করে আকামার মেয়াদ বাড়িয়ে নিতে হবে। তা না হলে ঐ সকল প্রবাসী কর্মী সৌদি ফিরতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।

এছাড়াও যারা নতুন ভিসায় সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিলেন অনেকের টিকিট করেছেন অথবা অনেকের ভিসা স্টাম্পিং হয়েছে আবার কারো কারো ভিসা প্রসেসিং থাকা অবস্থায় করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এর কারণে ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সৌদি আরবে যেতে পারেন নাই। ঐ সকল ভিসাগুলো সৌদি সরকার ক্যান্সেল করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে সৌদি দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে নতুন করে ২৫০০০ ভিসা ইস্যু করা হবে। তবে কর্মীরা তাদের স্পন্সর এর সাথে যোগাযোগ করে নতুন ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে। যদি স্পন্সর নতুন করে ভিসার জন্য আবেদন করে, তাহলে তাদেরকে পুনরায় ভিসা দেওয়া হবে। আর কপিল ভাই স্পন্সর যদি নতুন কর্মী আনতে না চায় তানাহলে বিকল্পভবে চাকরির খোঁজ করতে হবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

মূল বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশ থেকে অনেকে দালালের মাধ্যমে ভিসা ক্রয় করেছে। আবার অনেকেই বিভিন্ন কোম্পানি থেকে ভিসা সংগ্রহ করে পাঠিয়েছে। এখন যদি ঐ সকল কোম্পানি কর্মী আনতে অনীহা প্রকাশ করে তাহলে কি হবে ঐ সকল প্রবাসীদের? যারা লক্ষ লক্ষ টাকা বিয়ে অধীর আগ্রহে বসে আছে। সৌদি আরবে যাওয়ার জন্য।

আপনার মতামত লিখুন :