লক্ষ্মীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:২৭ PM, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
প্রতীকী ছবি

মোঃ ফারুক হোসেন, লক্ষ্মীপুর থেকে:

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী বাদল দেবনাথকে (৩৫) যাবজ্জীবন কারাদ-াদেশ দিয়েছে আদালত। আজ মঙ্গলবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রহিবুল ইসলাম এ রায় দেন।

এ সময় দ-প্রাপ্ত সাজাপ্রাপ্ত ঐ আসামীর ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১ বছরের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়। রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন আসামী বাদল দেব নাথ। জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁশুলি জসিম উদ্দিন রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত জানান, দ-প্রাপ্ত বাদল দেব নাথ রায়পুর পৌর শহরের দেনায়েতপুর গ্রামের বিনধ দেব নাথের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ইং সালের ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌর শহরের দেনায়েতপুর গ্রামে স্বামী বাদল দেবনাথ তার নিজ বাড়িতে স্ত্রী অঙ্কিতা দেবনাথকে হত্যার পর সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে অপপ্রচার চালায়।

এঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধারের পর ময়না তদন্তে হত্যার আলামত পায়। পরে রায়পুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. হারুন অর রশিদ বাদী হয়ে অভিযুক্ত বাদল দেবনাথকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরে ২০১৬ইং সালের ১লা সেপ্টেম্বর পুলিশ আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। দীর্ঘ শুনানী ও ৬ জন সাক্ষীর স্বাক্ষগ্রহণে আসামী বাদল দেবনাথ দোষী প্রামাণিত হওয়ায় আজ আদালত এ রায় প্রদান করেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁশলী জসিম উদ্দিন জানান, ২০১৫ইং সালের ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌর শহরের দেনায়েতপুর গ্রামে স্বামী বাদল দেবনাথ তার নিজ বাড়িতে স্ত্রী অঙ্কিতা দেবনাথকে হত্যার পর সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে আত্মহত্যার মিথ্যা প্রচারনা চালায়।

পরে রায়পুর থানায় থানায় ইউডি মামলা হওয়ার পর ময়নাতদন্ত রিপোর্টে হত্যার ঘটনা প্রকাশ পেলে ৩০২ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ শুনানির পর আজ মঙ্গলবার দুপুরে আদালত অঙ্কিতার স্বামী বাদল দেবনাথকে যাবজ্জীবন সাজা প্রদান করেন। এ রায়ে বাদী পক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেন। প্রতীকী ছবি রয়

আপনার মতামত লিখুন :