পাঁচবিবিতে ইউপি চেয়ারম্যান হতে ইচ্ছুক যাঁরা

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৮:১৭ PM, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

মোঃগোলাম কিবরিয়া (জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধি) ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পূর্বেই জয়পুরহাটের পাঁচবিবির ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হতে ইচ্ছুক যাঁরা। তাঁরা দলীয় সমর্থন নিতে জেলা ও উপজেলার শীর্ষনেতাদের দ্বারে দ্বারে দৌড়ঝাঁপের পাশাপাশি আগাম প্রচারণা শুরু করেছেন। জয়লাভের আশায় তাঁরা হাট-বাজার, মাঠে-ঘাটে ও গ্রামে ভোটারদের দোওয়া ও আর্শিবাদ প্রার্থনা করছেন। এরই মধ্যে অনেকেই দোওয়া ও আর্শিবাদ চেয়ে লিফলেট বিতরণের পাশাপাশি রঙিন ব্যানার টাঙ্গানো হয়েছে।
২০১৬ সালের নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হয়, এতে আ.লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকে ৪ জন, ধানের শীষে ৩ জন ও ১ জন আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচিত হন। ভোটের মাঠে যদিও স্বরব কেবল রাজনৈতিকভাবে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত এলেই বিএনপি প্রার্থীরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন এমন মন্তব্য করেন অনেকেই। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত না এলেও তৃণমুল নেতাকর্মীদের নিয়ে গ্রামে গ্রামে প্রচারণা করেছেন তাঁরাও। ভোটারদের শুভেচ্ছা জানিয়ে রঙ্গীন পোষ্টার টাঙ্গানোর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে প্রচারণা।
আসন্ন নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী বালিঘাটায় আ.লীগের বর্তমান চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান চৌধুরী বিপ্লব, মহির উদ্দিন মন্ডল, আওলাইয়ে একরামুর হক চৌধুরী তাওহীদ, মোহাম্মদপুরে এস এম রবিউল আলম চৌধুরী (পিন্টু), আটাপুরের আ.লীগের আব্বাস আলী সরকার, বাগজানায় বর্তমান ধানের শীষের চেয়ারম্যান নাজমুল হক, আ.লীগের জামাত আলী মন্ডল, ধরঞ্জীতে আ.লীগের নতুন মুখ মাহমুদুল হাসান, বিএনপির আবু নছর চৌধুরী ফরহাদ, আয়মারসুলপুরে বর্তমান আ.লীগ চেয়ারম্যান জাহিদুল আলম (বেনু), সাইদুল ইসলাম (সাবু), কুসুম্বার বর্তমান আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার হোসেন মন্ডল, জিহাদ হোসেন মন্ডল, আব্দুর রহমান চৌধুরীসহ বিভিন্ন দল ও স্বতন্ত্র হিসেবে একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থী এলাকায় গণসংযোগ, লিফলেট বিতরণ ও প্রচারণা শুরু করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :