রাস্তাই যেন ভুল করে চলে এসেছে বিদ্যুতের খুটির উপর-গাজীপুর

আবদুল্লাহ আল হাদীআবদুল্লাহ আল হাদী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০১:২২ AM, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মনিরুল ইসলাম মেরাজ,গাজীপুর প্রতিনিধি : 

যাতায়াত ব্যবস্থা সহজতর করার দাবির প্রক্ষিতে গাজীপুরের শ্রীপুরে গোসিঙ্গা থেকে শ্রীপুর হয়ে মাওনা যাওয়ার রাস্তাটি প্রশস্ত করে নির্মান করা হয়। সড়ক নির্মানের ফলে কালিয়াকৈর হতে শ্রীপুুর ও মাওনা হয়ে ঢাকাগামী গাড়ী চলাচলের দীর্ঘদিনের একটি দাবি পূরণ হলেও অপরিকল্পনা ও গাফিলতির কারনে রাস্তাটি এখন মরন ফাঁদে পরিণত হয়েছে।

রাস্তাটি নির্মানের জন্য পূর্বেই সীমানা নির্ধারন করা হলেও পল্লিবিদ্যুত কর্তৃপক্ষ তা যাচাইবাছাই না করেই রাস্তার সীমানার উপর বিদ্যুৎ সঞ্চালন খুঁটি স্থাপন করে। পরবর্তীতে আবার নিয়মের তোয়াক্কা না করেই খুঁটিগুলো দিয়ে বিদ্যৎ সরবরাহ চালু করে।
এর কিছুদিন পর থেকে রাস্তার কাজ শুরু হলে ঠিকাদার ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সেই খুঁটিগুলো অপসারন না করেই রাস্তার তৈরির পিচ দিয়ে ২-৩ ফুট পর্যন্ত ঢালাই সম্পন্ন করে। এর ফলে রাস্তার উপর স্থায়ীভাবে খুঁটিগুলো থেকে যায় এবং খুঁটিগুলোর কারনে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার সীমানার কোনো কোনো জায়গায় দুই হাত ভিতরে খুঁটিগুলো স্থাপন করা হয়েছে এবং এমনভাবে রাস্তার উপর ও সংলগ্ন ৩০ টির মতো খুঁটি স্থাপন করা হয়েছে। দেখে মনে হবে রাস্তাই যেন ভুল করে খুঁটির উপর চলে গেছে। খুঁটির কারনে রাস্তাটির জায়গা কমে যাওয়ায় বড় যানবাহন চলাচল এবং পাশাপাশি ভাবে চলাচলে সমস্যা হওয়ায় যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

বিষয়টির গাফিলতি নিয়ে বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করা হলে তারা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে দোষারূপ করে।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ শামসুল আরেফিন বলেন-এই বিষয়ে তারা অবগত না এবং সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগের পরামর্শ দেন।
তবে রাস্তার কাজের সাথে সংযুক্ত কারও কাছ থেকেই সৎউত্তর পাওয়া যায়নি।

রাস্তাটি নির্মানে ঠিকাদার ও বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ সমন্নয়হীনতা ও মূর্খতার পরিচয় দিয়েছে বলে মনে করেন বিশিিষ্টজনরা।
তবে এই গাফিলতির কারনে বড় কোনো দুর্ঘটনার আগেই যেন খুঁটিগুলো দ্রুত অপসারন হয় সেই দাবি জানিয়েছেন রাস্তা ব্যবহারকারী স্থানীয় মানুষজন।

আপনার মতামত লিখুন :