এটা কি বিবেকহীনতা, অমানবিকতা, শত্রুতা, হিংস্রতা, নাকি জঘন্য অপরাধবোধ থেকে সৌজন্যবোধটাকে হারিয়ে ফেলা? নাজমা আক্তার

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১২:৩৬ AM, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

অনলাইন নিউজ ডেস্কঃ

বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তারের সহধর্মিনী মৃত্যুবরণ করেছেন। তার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা শোক প্রকাশ করেছেন। কিন্তু যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল আনুষ্ঠানিক শোক প্রকাশ না করায় নাজমা আক্তার ফেসবুক পেজে ক্ষোভ প্রকাশ করে একটি স্ট্যাটাস দেন। যা নিম্নে হুবহু তুলে ধরা হলো।

এটা কি বিবেকহীনতা, অমানবিকতা, শত্রুতা, হিংস্রতা, নাকি জঘন্য অপরাধবোধ থেকে সৌজন্যবোধটাকে হারিয়ে ফেলা ?
প্রায় ৪০ বছরের রাজনৈতিক জীবনের ১৯টি বছরই কাটালাম যুব মহিলা লীগের সভাপতি হিসেবে । সম্প্রতি আমার মা মৃত্যু বরন করেছেন । মায়ের মৃত্যুতে সংগঠনের সাধারন সম্পাদক প্রেস রিলিজ দিয়ে শোক বার্তা পাঠাবে, এটিই বোধ হয় রাজনৈতিক শিষ্টাচার । কিন্তু অত্যন্ত দু:খের সাথে লক্ষ্য করলাম, সংগঠনের সাধারন সম্পাদক অপু উকিল সেটি তো করলোই না, ফেসবুকে দু:খ প্রকাশ করেও কোন স্ট্যাটাস দিতে দেখলাম না । এমনকি গত ৭ দিনে তার কাছ থেকে সহানুভূতির কোন ফোনও পেলাম না । তাহলে কি আমার মায়ের মৃত্যুর প্রেস রিলিজ আমাকেই দিতে হতো ?
কার সাথে এতোটি বছর রাজনীতি করলাম ? কোন একটি দৈনিক পত্রিকায় আমার মায়ের মৃত্যুতে শোক ও দু:খ প্রকাশ করে জনাব ওবায়দুল কাদেরের নামের সাথে অপু উকিলের নামটিও এসেছে । সেটি যুব মহিলা লীগের কোন প্রেস রিলিজ ছিল না, কোন এক সাংবাদিক ভাই তার নাম নিজের ইচ্ছাতেই জুড়ে দিয়েছেন । এইভাবেই কি মনুষ্যত্বহীন নিষ্ঠুর রাজনীতিকে সঙ্গী করে আমাদেরকে চলতে হবে ?

 

আপনার মতামত লিখুন :