রামগঞ্জে নগদ টাকা স্বর্ণালংকার নিয়ে গৃহবধূ উধাও

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৪৬ PM, ২০ অগাস্ট ২০২০

নিউজ ডেস্ক :
রামগঞ্জে নগদ টাকা স্বর্নালংকার নিয়ে গৃহবধূ উদ্ধাও ঘটনা পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সকালে উপজেলার পশ্চিম বিঘা আওলাদার বাড়িতে।
সূত্রে জানান পশ্চিম বিঘা চাদার বাড়ির ইসমাইল হোসেনের ছেলে মুজিবুল হক (৭০) দীর্ঘদিন যাবত একই গ্রামের হাওলাদার বাড়ির হতদরিদ্র দিনমজুর মানিক মিয়ার সাথে পরকিয়া করে আসছে।
এরই জেরধরে বুধবার সকালে ৩ সন্তানের জননী শিল্পী আক্তার পরকিয়া প্রেমিক রিকসা চালক মুজিবুল হকের হাতধরে কিস্তিতে নেওয়া গুচ্ছিত ৫০ হাজার টাকা, নগদ আটানি স্বর্ণের ওজনে চেইন, ছোট জাঁ আকলিমা থেকে ধার নেওয়া ৩৫হাজার টাকা নিয়ে উদ্বাও হয়। প্রেমিক রিকসা চালক মুজিবুল হক তার স্ত্রী,তিন ছেলে,২মেয়ে সহ নাতি-নাতনি থাকাসত্ত্বে গৃহবধূকে নিয়ে উদ্বাও ঘটনা স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হচ্ছে।
শিল্পীর মা রোকেয়া বেগম ও তার অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া বড় মেয়ে কাজল আক্তার জানান রিকসা ড্রাইভার মুজিবুল হক একজন লম্পট,প্রতারক। বৃদ্ধ বয়সেও আমার মেয়েকে জোরপূর্বক নিয়ে উদ্বাও হন। জামাতা মানিক মিয়া একজন সরল মনের মানুষ। গত শুক্রবার সোনাপুর সিএনজি স্টেশন আমার মেয়ে শিল্পীকে মুজিবুল হক জোরপূর্বক তুলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। লজ্জা খশিল্পী বিষপ্রাণে আত্মহত্যা চেষ্টা করেন।
মুজিবুল হকের প্রথম স্ত্রী ফাকিয়া বেগম বলেন এ বয়সে শ্বামীর বাটপারি সহ্য করা যাবে না। গত সপ্তাহ ছেলেকে বিয়ে করেছি। আমার উপযুক্ত সন্তান রেখে কিভাবে বিয়ে করে মুজিবুল হক।
তাকে শাস্তি দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন মুজিবুল হকের ছেলে জসিম উদ্দীন।
পুলিশ জানান মুজিবুল হকের বিরুদ্ধে গত শুক্রবার শিল্পী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

আপনার মতামত লিখুন :