প্রবাসীর আক্ষেপ হতাশার গল্প – স্পেন থেকে মোহাম্মদ সোহেল

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:০৫ AM, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

মাকে বড্ড মনে পড়ছে মায়ের সেই মলিন চেহারা কত দিন দেখা হয়নি৷ প্রিয়জনদের কথা আজ বড্ড মনে পরছে৷ মা ভিডিও কলে তার আদরের ছেলেকে বাবা বাবা বলে ডাকছে দুর থেকে দেখে হৃদয়কে শান্তনা দিচ্ছো৷ হাত দিয়ে সন্তানের গাল ছোঁয়ার সাধ্য কোথায়?

বাড়ির পিছনের রাস্তা কিংবা পুকুরপাড় আজ তোমার কাছে বড্ড আপন। ইচ্ছে করে দক্ষিণ দিকের করিকেল গাছ থেকে ডাব পেরে খেতে। বন্ধুদের সাথে কাটানো মুহুর্ত গুলো তোমাকে প্রতিনিয়ত পীড়া দিচ্ছে?

ঈদের সময় পরিবারের সবার সবকিছু কেনাকাটা করা শেষ৷ অথচ তোমার এখনো কিছুই কেনা হয়নি৷ ঈদের দিনেও তোমার অবসর নেই, আজোও তুমি কাজে?

দেশে বন্ধুরা ভ্রমনে বের হবে৷ খুব মজ মাস্তি করবে। এটা ওটার ছবি তুলে ফেসবুক, হোয়ার্টআপ কিংবা ইমুতে পিক আপলোড দিবে৷ তাদের সেল্ফি দেখে তুমি একটা দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলবে- ইস আমি যদি আজ এখানে থাকতে পারতাম।

কাজ করতে গিয়ে তোমার শরীর আজ অনেক ব্যাথা৷ একটুও অবসর থাকার সুযোগ নেই৷ আর দেশে তোমার কাছের মানুষ গুলো হয়তো দিব্যি অবসর৷

ঝলমলে ইউরোপ তোমাকে ডাকে। তুমি অজানা সমুদ্র পাড়ি দাও। কখনো সমুদ্রজলে তোমার লাশ ফেলে দেয়া হয়। নাম না জানা বড় বড় মাছ সেই লাশ এক মুহুর্তের মধ্য খেয়ে ফেলে।

প্রচন্ড গরমে কাজ করে তুমি খুব ক্লান্ত৷ অথচ দেশে সবাই জানে তুমি দাপ্তরিক কাজ করো শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ঘরে।

হঠাৎ করে মৃত্যুবরন করে আজ তুমি হয়ে গেছো লাশ। হাস্যজ্জ্বল মুখটা শুকনা মলিন হয়ে নিথর দেহ পড়ে আছে। সুগন্ধিত চা পাতায় মোড়ানো লাশ চলে আসবে বাংলাদেশ বিমানবন্দরে। কখনই তুমি ভাবো নাই,,এই বিমানবন্দরে শেষ বিদায় জানাতে আসা কাছের মানুষের সাথে আসলেই তোমার শেষ দেখা ছিল। বিধাতার খেলা বুঝার সাধ্য কার।

হে প্রবাসী, হে শ্রেষ্ঠ সন্তানরা৷ তোমাদের প্রতি রইলো আমার হৃদয়ের গভীর থেকে অফুরন্ত ভালবাসা আর বিনম্র শ্রদ্ধা৷ দেশ,সমাজ আর পরিবারের জন্য এমন সর্বোচ্চ ত্যাগ কজন করতে পারে? কয়জন বা সেক্রিপাইস হতে পারে??

……. সোহেল
মাদ্রিদ, স্পেন।
১৮/০৯/২০২০

আপনার মতামত লিখুন :