অবৈধ ক্ষমতার মসনদকে ধরে রাখাই বর্তমান সরকারের একমাত্র কাজ- রুহুল কবির রিজভী

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৪৫ AM, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মোঃশরিফুল ইসলাম সবুজ,স্টাফ রিপোর্টারঃ

বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী প্রেস কনফারেন্সে সরকারের বিরোদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন
এ সময় তিনি বলেন, দেশবাসীর দৈনন্দিন জীবনের সুখ-শান্তি আজ একের পর এক কেড়ে চলেছে এই ভোটারবিহীন গণবিরোধী সরকার। জোরজবরদস্তিমূলকভাবে ক্ষমতা দখলকারীদের দৌরাত্বে রাজনৈতিক সংকটের পাশাপাশি গুম, খুন ও ধর্ষণের ঘটনায় গোটা রাষ্ট্র মনুষ্যত্বহীন চেহারা ধারণ করে জনগণকে নিষ্পেষিত করছে। জনগণের স্বাভাবিক বাঁচামরার গ্যারান্টি নেই এই দুঃসময়ে। দেশে সীমাহীন বেকারত্ব, কর্ম সংস্থানের অভাব ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধিতে সরকারের কোন দায়িত্ব নেই। অগণতান্ত্রিক জবাবদিহিহীন সরকারের জনগণের কষ্টের প্রতি ভ্রুক্ষেপ নেই, হঠাৎ করে বাজারে লাফ দিয়ে পেঁয়াজের দামের অসহনীয় মূল্যবৃদ্ধি আবারও প্রমান করে যে, সরকার জনগণের প্রাণের বিনিময়ে অবৈধভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকাকেই বড় করে দেখছে। দেশের মানুষকে ক্ষুধায়, অর্ধাহারে, অনাহারে থাকলেও তাদের কোন যায়আসে না, শুধুমাত্র অবৈধ ক্ষমতার মসনদকে ধরে রাখাই বর্তমান সরকারের একমাত্র কাজ।

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসহ পেঁয়াজের এই অগ্নিমূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। এক সপ্তাহ আগে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩০/৪০ টাকায়। গত দু’দিন আগেও পেঁয়াজের দাম ছিল ৫০/৫৫ টাকা, আর আজকে পেঁয়াজের দর সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে। এমনিতেই নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষ দিশেহারা, তার ওপর এখন পেঁয়াজের এই অকল্পনীয় মূল্যবৃদ্ধি বর্তমান ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারের ব্যর্থতারই বহিঃপ্রকাশ। সরকার সমর্থিত দলের সিন্ডিকেটই পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির পৃষ্ঠপোষক। আমদানিকারক ও ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কারসাজিতেই পেঁয়াজের এই মূল্যবৃদ্ধি।

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা,
ভারতে ইলিশ মাছ উপহার হিসেবে প্রেরণ করার সাথেই সাথেই বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানী বন্ধ করে দিয়েছে ভারত। বাংলাদেশ এই সংবাদ পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গেই বাজার সিন্ডিকেটের হোতারা তেলেসমাতি শুরু করে দেয়। বাজার অস্থির হয়ে পড়ে। দেশে পেঁয়াজ মজুদ থাকলেও বিক্রি কমিয়ে দিয়েছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা। ফলে বাজারে পেঁয়াজের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে, এই সংকট কৃত্রিম। এর আগেও সরকারপ্রধান নিজেও “পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে, আর কোনো সমস্যা নাই’’ বলে জনগণের সাথে তামাশা করেছেন যা মানুষ ভুলে যায়নি।

মূলত: ভোটারবিহীন সরকারের দুর্নীতি, টাকাপাচার, লুটপাটের মাধ্যমে পাহাড়সমান সম্পদ অর্জনের ফলশ্রুতিতে তারা দেশের সাধারণ মানুষের প্রতি উদাসীন, জনগণ বাঁচলো কি মরলো সেটি তাদের বিবেচ্য নয়। অদ্ভুত এক আঁধার নেমে এসেছে এদের আমলে। সরকার এখনও পর্যন্ত কোন প্রমানই দিতে পারেনি যে, তারা জনকল্যাণে কোন কাজ করেছে অথবা তাদের কোন নীতি ন্যায়সঙ্গত।
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি পেঁয়াজের এই অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে। আমি অবিলম্বে পেঁয়াজের মূল্য স্বাভাবিক করতে বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের আহবান জানাচ্ছি।

আপনার মতামত লিখুন :