খুলনায় কতিথ সাংবাদিক মাদকসহ গ্রেফতার

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:২৮ PM, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

শেখ নাসির উদ্দিন, খুলনা প্রতিনিধিঃ খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকার ৩য় ফেজে একটি বহুতল ভবনের ৪র্থ তলায় অভিযান চালিয়ে কথিত এক সাংবাদিককে মাদকসহ গ্রেফতার করা হয়েছে।

রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে খুলনার মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখা এ অভিযান পরিচালনা করেছেন। এসময় কথিত ওই সাংবাদিক মোঃ জহিরুল ইসলাম শামীম’র কাছ থেকে গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। এঘটনায় তার বিরুদ্ধে ডিবি’র পক্ষ থেকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। এদিকে কথিত ওই সাংবাদিকের ভাড়া বাসায় ডিবি’র অভিযানের খবর পেয়ে আশপাশের বাসিন্দারা ভিড় জমান। অনেকেই অভিযোগ করে বলেন সাংবাদিক পরিচয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে ওই ফ্লাট গুলোতে নানা ধরনের অপকর্ম চালান তিনি।

ওই বাড়ির মালিক মুন্সি আক্তার হোসেন জানান, মোঃ জহিরুল ইসলাম শামীম সাংবাদিক পরিচয়ে বাড়ির ৪র্থ তলার ২টি ফ্লাট ভাড়া নিয়েছেন। ডিবি’র অভিযানকালে মাদক উদ্ধারের সময়ে তিনি ঘটনাস্থলে গেলে কথিত সাংবাদিক শামীম গাঁজা সেবনের কথা স্বীকার করেন।

এবিষয়ে নগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)’র এসি অমিত কুমার বর্মন জানান, রবিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকার ৩য় ফেজে’র ২নং রোডের ৬নং হোল্ডিংয়ের মুন্সি আক্তার হোসেনের বাড়ির ৪র্থ তলায় মোঃ জহিরুল ইসলাম শামীম’র ভাড়া বাসায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে তার কাছ থেকে ৪০ গ্রাম মাদক দ্রব্য গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে।
অভিযানকালে তার কাছ থেকে একটি পত্রিকার আইডি কার্ড (পরিচয়পত্র) পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে তিনি স্বীকার করেছেন নিজের প্রয়োজনে পত্রিকার কার্ড তিনি নিয়েছেন। তবে তিনি সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত নন বলেও স্বীকার করেছেন। এঘটনায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত: বর্তমানে অনলাইন টিভি, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, আইপি টিভি’র সাংবাদিক পরিচয়ে বেশ কিছু চক্র সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করছে। এদের হাতে প্রতিনিয়ত অপমান ও লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছে নানা শ্রেনী পেশার মানুষ। শিক্ষক, ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী কেউ বাদ পড়ছে না এ প্রতারক চক্রের চাঁদাবাজির হাত থেকে। অখ্যাত পত্রিকার কার্ডধারী কথিত এ সাংবাদিকরা মাদক ব্যবসাসহ নানা ধরনের অপকর্মের সাথে যুক্ত রয়েছে। এসকল কথিত সাংবাদিকদের নিয়ে পেশাজীবী সংবাদকর্মি ও প্রশাসন বিব্রত অবস্থায় রয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :