নোয়াখালীতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় শিশুর পেট কাটার প্রতিবাদে মানববন্ধন

আবদুল্লাহ আল হাদীআবদুল্লাহ আল হাদী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:১৭ PM, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০

জামিলা আক্তার রুজিনা, নোয়াখালী সদর উপজেলা প্রতিনিধি :  ১০ সেপ্টেম্বর সকাল ১১ টায় নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে
ভুল চিকিৎসার স্বীকার হওয়া চার বছরের শিশু মেহেবার এর পরিবার এবং সচেতন এলাকাবাসী।

শিশুটির বাবা রিয়াজ উদ্দিন মিনার বলেন, নোয়াখালীর গুডহিল কমপ্লেক্স হসপিটাল এবং প্রাইম হসপিটাল চিকিৎসার নামে অপ-চিকিৎসা শুরু করে দিয়েছে। যার প্রত্যক্ষ ভুক্তভোগী আমার ৪ বছরের ছোট্র মেয়ে মেহেবার।

তিনি আরো জানান, শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ ইয়াকুব আলী মুন্সী, গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাঃ মুসফিক ও আল্ট্রা ডাঃ মাহমুদুর রহমান এবং সার্জন ডাঃ সাইফ উদ্দিন এর অপচিকিৎসা এবং ভুল অপারেশনের কারনে আমার মেয়েকে মৃত্যুর মুখোমুখি হতে হয়েছে। তাদের ভুল রিপোর্ট এবং ভুল চিকিৎসার কারণে আমার মেয়ের অবস্থা খুবই সংকটাপন্ন হয়েছিলো। অল্পের জন্য মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে এসেছে সে। আমার মেয়ের সামান্য পেট ব্যথা ছিলো কিন্তু তাতে তারা কসাইয়ের মত পেটের নিচে ৯ ইঞ্চি কেটে ফেলে রক্তাক্ত অবস্থায় আমাকে ডেকে নিয়ে বলে তাদের দ্বারা নাকি আমার মেয়ের অপারেশন করা সম্ভব হবে না! পরবর্তীতে তারা আমার মেয়েকে যত দ্রুত সম্ভব ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়।

এক মাস পরে আমি ঢাকা থেকে মেয়ের চিকিৎসা করে নোয়াখালী ফিরে এসেছি। এর মধ্যে বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষায় স্পষ্ট উল্লেখ করা আছে যে, তার পেটের ভেতরে কোন রকম সমস্যা ছিলনা, কিন্তু এই ডাক্তাররা না বুঝেই আমার ছোট্র মেয়ের অপুরনীয় ক্ষতি করেছে, যার কষ্ট আমার মেয়ে আজীবন ভুগবে।

আমি এ সকল ডাক্তার এবং হাসপাতালের বিরুদ্ধে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

সেই সাথে নোয়াখালীর মাননীয় জেলা প্রশাসক, সিভিল সার্জন এবং পুলিশ সুপারের নিকট আকুল আবেদন করছি সুষ্ঠু বিচার এবং সুস্থ চিকিৎসাব্যবস্থার জন্য তারেকে যেন দ্রুত আইনের আওতায় আনা হয়।

আপনার মতামত লিখুন :