কুতুবদিয়া চ‍্যানেলে জলদস্যুরা ৫ জেলেকে আপহরণ করে মালামাল লুট নিয়েছে

আবদুল্লাহ আল হাদীআবদুল্লাহ আল হাদী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:১৭ AM, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের কুতুবদিয় চ্যানেলে ফিশিং বোট ডাকাতিসহ ট্রলার ডুবিয়ে দিয়ে মালামাল লুট করে ৫ জেলে আপহরণের ২৪ ঘন্টা পর উদ্ধার,

কুতূবদিয়ার জেলেরা জানান বঙ্গোপসাগর থেকে মাছ ধরে উপকূলে ফিরে আসার পথে জলদস্যুদের কবলে পড়ে “এফবি মায়ের দোয়া” নামক ফিশিং বোটটি। গত ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে কুতুবদিয়া চ্যানেলে পৌছলে ১৪/১৫ জনের সশস্ত্র জলদস্যুরা
ট্রলারটিতে হামলা চালিয়ে জাল, মাছ, ডিজেল এবং মেশিনের মূল্যবান যন্ত্রাংশসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে ৫ জেলেকে আপহরণ পূর্বক বোট সাগরে ডুবিয়ে দেয়। ৬ সেপ্টেম্বর রবিবার ভোরে পাঁচ জেলে ২৪ আহরণের পর বোটসহ ৫ জেলেকে ফেরৎ দেয় জলদস্যু পারে তাদেরকে উদ্ধার কর উপকূলে ফিরে আনা হয়েছে।
বোটের মাঝি শফিউল আলম জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দুপুরে কুতুবদিয়া উপকূলের উত্তর ধুরুং কায়ছারপাড়া এলাকা থেকে সাগরে মাছ ধরতে যায় পারে মাছ ধরে উপকূলে ফিরে আসার পথে জলদস্যুরা তাদের বোটে হামলা চালিয়ে মালামাল লুট করে বোটটি ডুবিয়ে দিয়ে ৫ জনকে অপহরণ করে নিয়েগেলে বোটে থাকা ৫ জেলে সাগরে ২৪ ঘন্টা ভাসামান অবস্থায় দেখে আপর ফিসিং বোট তাদের উদ্ধার করে উপকুলে নিয়ে আসে। সাগরে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধারকৃত জেলেরা হচ্ছে উত্তর ধুরুং এলাকার ছাবের আহমদের ছেলে রবিউল আলম (২৬) একই এলাকার সিরাজদ্দৌল্লাহ ছেলে ফোরকান (২১) অসুস্থ অবস্থায় তাদেরকে রবিবার ৬ সেপ্টেম্বর বিকালে কুতুবদিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উদ্ধারকৃত জেলেরা জানান কুতুবদিয়া এবং বাশঁখালী উপকূলের কয়েকজন জলদস্যুকে ছিনতে পারায় তাদেরকে প্রাণে হত্যার উদ্দেশ্যে বোটটি ডুবিয়ে দেয়। তবে এ রির্পোট লিখা পর্যন্ত বোটের মাঝি শফিউল আলম বাদি হয়ে কুতুবদিয়া থানায় মামলা করা হবে বলে জানান।এলাকার স্থানীয় ইউপির সদস্য মোঃ ছলিম উল্লাহ এই বেপারে অপহরণসহ বোট ডুবিয়ে দেয়ার তথ্য নিশ্চিত করেন।

আপনার মতামত লিখুন :