ঝিনাইদহ হরিণাকুন্ডুর দৌলতপুরে ঘাস কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নারীসহ আহত-৬

আবদুল্লাহ আল হাদীআবদুল্লাহ আল হাদী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:১৬ AM, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি :

ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার দৌলতপুর গ্রামে ঘাস কাটাকে কেন্দ্র করে নারীসহ ৬ জন আহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন, আসির উদ্দিন মন্ডলের ছেলে বদর উদ্দিন মন্ডল (৬৫) তার স্ত্রী সুন্দরী বেগম (৫৫), আহম্মদ আলি খাঁর ছেলে আব্দুল কুদ্দুস (৫০), নুর আলম মণ্ডলের ছেলে টেংরা মন্ডল (৩৫), বদরুদ্দীন মণ্ডলের ছেলে মেহেদী হাসান (৩০) এবং আবুল হোসেনের ছেলে আলী হোসেন (৪০)।

স্থানীয়রা জানায়, দৌলতপুর গ্রামের সরোয়ার বিশ্বাসের ছেলে কাজল রোববার বিকেলে ওই গ্রামের মাঠে মেহেদী হাসানের জমিতে ঘাস কাটতে যায়। পরে মেহেদী ঘাস কাটতে নিষেধ করলে একপর্যায়ে তারা বাকবিতণ্ডে জড়িয়ে পড়ে। সে সময় ৬ জন আহত হয়। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত মেহেদী বলেন, রাজ্জাকের নেতৃত্বে হাসুয়া, লোহার রড, বাঁশের লাঠি, রামদা নিয়ে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। সে সময় আমার বাসার আলমারি, শোকেস, ডেসিন টেবিল ও পাওয়ার টিলার ভাঙচুর করে। এছাড়াও আমার বাসার শোকেসে থাকা নগদ ৩২ হাজার টাকা নিয়ে যায় বলে তিনি আরো অভিযোগ করেন।

শাখারীদহ বাজারের রানা টেলিকম মোবাইল শোরুম এর মালিক রানা জানান, মেহেদি আমার দোকানে বসে ছিল। সে সময় ১৫/২০ জন এসে মেহেদীর উপর হামলা চালায়। সে সময় ঘটনাস্থলে থাকা লোকজন মেহেদিকে ঠেকাতে গেলে তাদের উপর আক্রমণ করা হয়। এছাড়াও মেহেদির বাড়ির উপরে গিয়ে মারধর করা হয়।

এব্যাপারে বাজার কমিটির কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম জানান, এটি একটি জঘন্যতম ঘটনা। এটি সঠিক তদন্ত করে দোষীকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

এ ব্যাপারে হরিনাকুন্ডু থানা অফিসার ইনচার্জ জানান, এবিষয়টি আমি শুনেছি। উভয়পক্ষের কিছু লোকজন আহত হয়েছেন। লিখিত অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :