নবাবগঞ্জে বিবাদীয় জমিতে জোর পুর্বক ঘর নির্মানকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৪৭ AM, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

মো মুশফিকুর রহমান (মিলু) বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাদুরিয়া বাজারে বিবাদীয় জমিতে জোর-পূর্বক ঘর নির্মানকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।৯৯ বছরের জন্য স্থায়ী বন্দবস্ত নিয়ে সন-সন খাজনা পরিশোধ করে আসেন।

পরবর্তিতে ১৯৭৫ সালে অন্যান্যরা অবশিষ্ট ১২ শতক ও ০৮ শতক মোট ২০ শতক জমি একই ভাবে বন্দবস্ত করে নেয় এবং ০২ শতক জমি জন সাধারনের পুকুরে যাতায়াতের জন্য রাখা হয়। সম্প্রতি সময়ে আফাজ উদ্দিনের ৩৩ শতক জমির মধ্য হতে প্রায় ১০ শতক জমিতে জোরপূর্বক ঘরে নির্মান করার জন্য শিমর গ্রামের মৃত্যু তছলিম উদ্দিন চৌধুরীর ছেলে জাহাঙ্গীর চৌধুরী গংরা পায়তারা চালাতে থাকে। এ ঘটনা দেনদরবার ও শেষে আদালতে মোকদ্দমা সৃষ্টি হয়। আজ শনিবার ৫ সেপ্টেম্বর জাহাঙ্গীর চৌধুরী গংরা বিচারাধীন থাকা ও-ই জমিতে মারাত্নক অস্ত্র- সস্ত্রে সজ্জিত লাঠিয়াল বাহিনীকে নিয়ে জোর-পূর্বক ঘর নির্মানের কাজ শুরু করে।

এদিকে মৃত্যু আফাজ উদ্দিনের ছেলে সাধিন খবর পেয়ে তার লোকজন সহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে উভয় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে বেলা ১১ টায় নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ অশোক কুমার চৌহান দ্রুত ঘটনাস্থলে একদল পুলিশ পাঠায়।পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে এবং আদালতের রায় কার্যকরের পুর্ব পর্যন্ত উভয় পক্ষকে নির্মান কাজ বন্ধ রাখার জন্য নিষেধ করেন।

আপনার মতামত লিখুন :