রামগঞ্জে আদালত নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রাতের আধারে সম্পত্তি বেদখল। সংঘর্ষে গুরুতর আহত-৬

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:০৩ PM, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

রামগঞ্জ ( লক্ষ্মীপুর ) প্রতিনিধি :
রামগঞ্জে আদালত নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বাদী কর্ত্তৃক রাতের আধারে ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে সম্পত্তিতে স্থাপনা তৈরি করেন।
ঘটনাটি ঘটেছে আজ বৃহস্প্রতিবার ভোরবেলায় উপজেলার পূর্ব মাছিমপুর হাবীব উল্যাহ বেপারী বাড়িতে। এ সমযে বাঁধাদিলে দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্র দিলে চন্ডিপুর ইউপি যুবলীগের যুগ্নআহবায়ক কামাল হোসেন পন্ডিত (৩৫), কৃষক খোরশেদ আলম (৬৫) তার স্ত্রী পারভীন বেগম (৪৫),রেহানা বেগম (২৮)কে মারাত্মক আঘাত করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা আহতদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ভর্তি করেন।]
সূত্রে জানান খোরশেদ আলমের সাথে একই গ্রামের মৃত আবুল হাসেমের ছেলে শরীফ হোসেনের সম্পত্তি বিরোধ চলছে। বিরোধ নিরসনে খোরশেদ আলম রায়পুর সার্কেল অফিসে অভিযোগ করেন। স্থানীয়দের সহায়তা সুস্থ তদন্ত সাপেক্ষে সম্পত্তির বৈধকাগজপত্র অনুযায়ী খোরশেদ আলমের পক্ষে রায় হয়। রায় পাওয়ার পরেই শরীফ বাদী হয়ে গত মাসখানেক আগে লক্ষ্মীপুর বিজ্ঞ আদালতে ১৪৪ধারা জারীর আবেদন করলে আদালত কর্ত্তৃক নিষেধাজ্ঞা জারী করেন।
বৃহস্প্রতিবার গভীররাতে আদালতে নিষেধাজ্ঞার মামলার বাদী শরীফ নিজেই আদালত নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে গ্রামের চিহৃিত দুষ্কৃতিকারী একই গ্রামের মুছলিম,আব্দুল হারেছ,আসলাম মিয়া,খোকন মিয়া, মাসুদ আলম,নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে ১০/১৫ জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ককটেল বিস্ফোরণ করে গ্রামে আতংক সৃষ্টি করে সম্পত্তিতে তড়িগড়ি করে বাঁশ,কাঠ দিয়ে ঘর নির্মাণ করেন।
ওই সময়ে বাঁধাদিলে কৃষক খোরমেদ আলমের পরিবার সহ ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা কামাল পন্ডিতের উপর হামলা করেন।
খোরশেদ আলম জানান আমার মালিকীয় সম্পত্তি শরীফ হোসেন ভাড়াটে দুর্বৃত্ত দিয়ে রাতের আধারে সম্পত্তিতে স্থাপনা করেন।
কামাল হোসেন পন্ডিত জানান সরকার সমর্থিত একজন নেতার উস্কানি কারণে বাদী সম্পত্তি বেদখল করেন।
শরীফ হোসেন জানান সম্পত্তি খরিদসূত্রে মালিক থাকার কারণে আমি সম্পত্তি দখল করেছি।
মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই তাজুল ইসলাম জানান অাদালতে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে সম্পত্তি বেদখলকারী ছাড় পাবে না।

আপনার মতামত লিখুন :