খুলনায় বিএনপির ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

বার্তাকক্ষবার্তাকক্ষ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:০১ PM, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২০

শেখ নাসির উদ্দিন, খুলনা প্রতিনিধিঃ বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, ‘স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্র সুরক্ষা ও উৎপাদনমুূখী রাজনীতির স্লোগান দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলো বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর এই দল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তার স্লোগান ছিল কর কাজ গড় দেশ ও উৎপাদনমূখী রাজনীতির সৈনিক হও। ১৯ দফা অর্থনৈতিক কর্মমূখী ও স্বনির্ভর বাংলাদেশ গড়া তার স্বপ্ন ছিল।

একটি গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ, সাম্য ও সুশাসনের বাংলাদেশ গড়াই ছিল তার লক্ষ্য। জাতীকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য দেশপ্রেমিক জাতীয়তাবাদী শক্তির ঐক্যবদ্ধ মঞ্চ বিএনপি। দেশের মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসের দল বিএনপি। জিয়ার সততা, দেশপ্রেম, নিষ্ঠা, বলিষ্ঠ নেতৃত্বই তার জনপ্রিয়তা। ধর্মীয় মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা, সামাজিক ন্যায় বিচার ও সুসম বন্টনের রাজনীতি করেছেন তিনি। এক ব্যক্তি ও একদলের রাজনীতির পরিবর্তের বহুদলীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা পূনপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।’

তিনি আরো বলেন, ‘সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার পূনপ্রতিষ্ঠা, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা, একটি শক্তিশালী দেশ প্রেমিক সেনাবাহিনী ও প্রশাসন গড়ে তোলা, গ্রামীন অর্থনীতি ও কুটির শিল্প প্রতিষ্ঠা, বৃক্ষরোপণের মাধ্যমে পরিবেশের সুরক্ষায় অবদান রয়েছে তার। ৮১ সালে জিয়া হত্যা বিএনপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। ৮২ সালে স্বৈরাচার এরশাদ ক্ষমতা দখল করে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে নতুন মাত্রা সৃষ্টি হয় বিএনপির। ৯ বছর গণতান্ত্রিক আন্দোলনের আপোষহীননেত্রীর সঙ্গতি গণতন্ত্রেও বিজয় এরশাদের পতন ঘটে। ৯১ সালে সরকার গঠন করে বিএনপি। ৯৭ তে আবারও গণতান্ত্রিক আন্দোলন, ২০০১ সালে সরকার গঠন, এরপর বিএনপির বিরুদ্ধে আবারও ষড়যন্ত্র শুরু হয়। ১/১১ মঈনুদ্দিন-ফখরুদ্দিন-হাসিনা ষড়যন্ত্র করে ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় বসায়।’

বিএনপি ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে খুলনা মহানগর ও জেলা শাখার যৌথ উদ্যোগে মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) দলীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

এদিন যথাযোগ্য মর্যাদায় ও বর্ণাঢ্য কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সকল দলীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। মূল সড়কে তোরণ নির্মাণ, বেলা ১১ টায় দলীয় কার্যালয়ের সামনে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বেলা ১১ টায় বেলুন, ফেস্টুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু।

দোয়া অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান স্বাধীনতার ঘোষক, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এর আত্মার মাগফেরাত কামনা, বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সুস্থতা কামনা এবং দেশের করোনা মহামারী আক্রান্ত ব্যক্তিদের সুস্থতা কামনা, মৃতদের আত্মার মাগফিরাত ও দেশবাসীর শান্তির কামনা করা হয়।

বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান মুরাদ ও ওহেদুজ্জামান রানার পরিচালনায় সভায় বক্তৃতা করেন জেলা বিএনপির সভাপতি এসএম শফিকুল আলম মনা, নগর সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, জেলা সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান, বিএনপি নেতা জাফরুল্লাহ খান সাচ্চু, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, আবু হোসেন বাবু, এড. ফজলে হালিম লিটন, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, মোল্লা মোশাররফ হোসেন মফিজ, এ্যাড. মাসুদ হোসেন রনি, রেহানা আক্তার, এড. তসলিমা খাতুন ছন্দা, মুজিবর রহমান, চৌধুরী নাজমুল হুদা সাগর, শরিফুল ইসলাম বাবু। অনুষ্ঠানে কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা আব্দুল গফ্ফার।

আপনার মতামত লিখুন :